1. alamgirtekcip@gmail.com : allinonelogin :
  2. engg.robel.seo@gmail.com : Beautiful Bangladesh :
শনিবার, ০৬ জুন ২০২০, ০৬:৩২ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ :
প্রধনমন্ত্রীর কাছে করোনা টেস্ট উখিয়াতে আলাদা ল্যাব স্থাপনের অনুরোধ করেছেন এমপি শাহীন-বদি  কক্সবাজার পৌরসভা লক ডাউন– জেলা প্রশাসনের নির্দেশনা! দেশে আরও ১১ জনপ্রতিনিধি বরখাস্ত টেকনাফ পৌর এলাকার ২৬০ জেলে পরিবারের মাঝে ৫৬ কেজি করে চাল বিতরণ! শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অফিস খোলা রাখার অনুমতি দিয়েছে সরকার মেয়র মুজিবুর রহমানের জন‍্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন আবু ছৈয়দ মেম্বার মেয়র মুজিবুর রহমানের জন‍্য টেকনাফ পৌরবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন মেয়র হাজ্বী মোঃ ইসলাম ছেলের শিক্ষা খরচের নামে ১৩২ কোটি টাকা বিদেশে পাঠিয়েছেন মাহি বি চৌধুরী! প্রিয় উখিয়া টেকনাফবাসীকে ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সাবেক এমপি বদি ও এমপি শাহীন বদি এডঃ জহিরুল ইসলামের মৃত্যুতে সাবেক এমপি বদি ও এমপি শাহীন বদি’র শোক!

কক্সবাজার কারাগারে মাঝরাতে কয়েদীর স্ট্রোক, হাসপাতালে মৃত্যু

  • আপডেট টাইম বুধবার, ১৫ এপ্রিল, ২০২০
  • ৩৬৪ নিউজটি পড়া হয়েছে

 

নিজস্ব প্রতিবেদক :::
অন্য আসামির সাথে নামের মিল থাকায় কক্সবাজার জেলা কারাগারে অন্তরীণ এক কয়েদীর মৃত্যু হয়েছে।

কারাগার সুত্র দাবি করছে, হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মোহাম্মদ ইসমাইল (৩৫) নামে ওই কয়েদীর মৃত্যু হয়। তিনি বন মামলায় ৬ মাসের সাজা ভোগ করছেন। গত ৩ মার্চ থেকে কারাভোগ করছেন।

মোহাম্মদ ইসমাইল টেকনাফ উপজেলার নয়াপাড়ার মৃত অলি আহমদের ছেলে। তার স্ত্রী, দুই ছেলে ও দুই মেয়ে রয়েছে।

মঙ্গলবার (১৪ এপ্রিল) দিবাগত রাত দেড়টার দিকে জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। ইতোপূর্বে রাত পৌণে ১২টার দিকে কারাগারে স্ট্রোক করেন।

কক্সবাজার জেল সুপার মোকাম্মেল হোসেন সংবাদমাধ্যমকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, একটি বন মামলায় ৬ মাসের সাজাপ্রাপ্ত হয়ে গত ৩ মার্চ থেকে কারাগারে আছেন মোহাম্মদ ইসমাইল।

কারা চিকিৎসকের বরাত দিয়ে তিনি বলেন, রাত পৌনে ১২টার দিকে স্ট্রোক করলে তাকে দ্রুত হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) ডাঃ মোহাম্মদ শাহীন মো. আবদুর রহমান চৌধুরী জানান, ময়না তদন্ত শেষে স্বজনদের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হবে।

অপরদিকে মোহাম্মদ ইসমাইলের স্ত্রী জান্নাতুল ইয়াসমিন মুন্নি দাবি করেছেন, আরেকজনের মিথ্যা মামলায় নামের গরমিলের কারণে আসামি হয়ে ৬ মাসের সাজাপ্রাপ্ত হন তার স্বামী। অথচ কখন, কি কারণে মামলা হয়েছে, সাজা কখন হয়েছে কোন কিছুই তারা জানতেন না।

মুন্নির দাবি, তার স্বামীকে বাড়ি থেকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে নিয়ে যাওয়ার পরে জেনেছেন তিনি মামলায় সাজাপ্রাপ্ত আসামি!
মিথ্যা মামলায় যারা তার স্বামীকে আসামি বানিয়েছে, তাদেরকেই এই মৃত্যুর জন্য দায়ী করেছেন তিনি।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..